হুগলিতে বৃদ্ধ বাবার মাথা থেঁতলে খুন! নির্বিকার মেয়ে বলল, 'বেশ করেছি মেরেছি'

 বারবার বাড়ি থেকে বেরিয়ে যেতেন বাবা। তাই রাগে লাগাম দিতে পারেননি মেয়ে (Hooghly)। বাবার মাথা বাঁশ দিয়ে মেরে থেঁতলে দিয়েছে সে। আর তার জন্য কোনও অনুতাপ নেই। পুলিশের কাছে কাঁদতে কাঁদতে সে জানিয়েছে 'বেশ করেছি মেরেছি। অনেকবার মেরেছি।'


মৃতের নাম কালীপদ দাস (৮৩)। তিনি অবসরপ্রাপ্ত রেলকর্মী। বাড়িতে তিনি ছাড়াও তাঁর স্ত্রী থাকতেন। এছাড়া থাকত তাঁদের বিবাহবিচ্ছিন্না মেয়ে কেয়া। অভিযোগ, বৃদ্ধ বাবার সঙ্গে কেয়ার ঝামেলা লেগেই থাকত। শনিবার তা চরম আকার নেয়। কেয়া জানিয়েছে তার বাবা বাঁশ নিয়ে তাঁকে মারতে আসছিলেন। তাই পাল্টা তিনি বাঁশের আঘাত করেছেন বাবার মাথায়। সজোর আঘাতে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন বৃদ্ধ। ঘটনাস্থলেই তাঁর মৃত্যু হয়। কেয়ার অশীতিপর মা'কে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাড়ি সিল করে দিয়েছে পুলিশ। মেয়েটিকে আটক করা হয়েছে। ঠিক কী নিয়ে অশান্তি শুরু হয়েছিল তা এখনও পরিষ্কার করে জানা যায়নি। পুলিশ জিজ্ঞাসাবাদ চালাচ্ছে। সূত্রের খবর, গোটা ঘটনা প্রথমে নজরে আসে বাড়ির পরিচারিকার। তিনিই পাড়ায় খবর দেন। পুলিশ এসে দেখে বাথরুমের সামনে পড়ে আছে কালীপদ দাসের মৃতদেহ। তদন্ত চলছে।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ