মা উড়ালপুলের বিজ্ঞাপন যোগীর উত্তরপ্রদেশে

 নিউজ ডেস্ক : কেলেঙ্কারি কাণ্ড!‌ তাঁর আমলে নাকি উত্তরপ্রদেশে (Uttarpradesh) দারুণ উন্নয়ন হয়েছে। খবরের কাগজের প্রথম পাতা জুড়ে বিজ্ঞাপনে সেসবই লেখা রয়েছে। রয়েছে যোগী আদিত্যনাথের (Yogi Adityanath) বড় ছবি। কিন্তু উন্নয়নের যে ছবি ব্যববার করা হয়েছে, তা কলকাতার মা উড়ালপুলের (Maa Flyover)!‌ দেখা যাচ্ছে হলুদ ট্যাক্সিও। ডবল ইঞ্জিনে এই দৈন্য কেন?


কেন কলকাতার উন্নয়নের ছবি ব্যবহার করতে হয়েছে যোগীকে? উঠতে শুরু করেছে প্রশ্ন। বাচ্চারা ভ্যাকসিন নিক, চাইছেন ৬৩ শতাংশ বাবা-মা বছর ঘুরলেই উত্তরপ্রদেশে বিধানসভা নির্বাচন। তাই জোরকদমে শুরু হয়েছে সরকারি প্রচার। যোগী আদিত্যনাথের 'কর্মযজ্ঞ' প্রকাশের বিজ্ঞাপনে দেখা যাচ্ছে কলকাতার 'মা' উড়ালপুলের ছবি। সেই ছবি যে কলকাতার, তা উড়ালপুলের পাশের একটি হোটেলের ছবি থেকেও স্পষ্ট। ভাল করে দেখলে বোঝা যায়, উড়ালপুলের উপর চলছে কলকাতার অন্যতম পরিচয় হলুদ ট্যাক্সিও। পার্ক সার্কাস ও এজেসি বোস রোডের সঙ্গে ইএম বাইপাসকে সংযুক্ত করা এই উড়ালপুলের নাম 'মা' রেখেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই সেতু কী করে উত্তরপ্রদেশ সরকারের বিজ্ঞপনে ব্যবহার করা হল? আজ, রবিবার বেশ কয়েকটি সর্বভারতীয় সংবাদপত্রে পাতা জোড়া বিজ্ঞাপন প্রকাশিত হয়। আর তা নিয়ে ইতিমধ্যেই সমালোচনায় সরব তৃণমূল। দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ওই বিজ্ঞাপনের ছবি প্রকাশ করে টুইটে দাবি করেছেন, বাংলার উন্নয়নের ছবিতেই ভরসা করছে বিজেপি-র সরকার। বিজেপি-র 'ডবল ইঞ্জিন মডেল' ব্যর্থ হয়েছে।

বিষয়টিতে কলকাতা পুরসভার প্রশাসক এবং পরিবহন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম জানিয়েছেন, বিজেপি মানেই মিথ্যেবাদী। মা উড়ালপুল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৈরি। সেই ছবি ব্যবহার করে প্রচার করা হচ্ছে। বিজেপি সরাসরি স্বীকার করে নিতে পারত যে, বাংলার মতোই উন্নয়ন করতে চায় ওরা। এ ব্যাপারে সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তী বলেন, 'এ তো দেখছি চোরের বাটপারি! ওই ফ্লাইভারের সিংহভাগ বামফ্রন্টের সময়ে তৈরি। তার নাম ছিল পরমা আইল্যান্ড ফ্লাইওভার। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারে এসে নীল-সাদা রঙ করে আর নাম বদল করে নিজের বলে চালানোর চেষ্টা করেছিলেন। এবার সেটাকে নিয়ে নিয়েছেন যোগী আদিত্যনাথ!'


একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ