মমতার হাত ধরে সামনে হাঁটি, দিল্লি হবে বাংলার ঘাঁটি, ছড়া কাটলেন মদন

0

নিউজ ডেস্ক : ভবানীপুর উপনির্বাচন নিয়ে বিজেপি-র রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের মন্তব্যের জবাব দিলেন কামারহাটির বিধায়ক তথা তৃণমূল নেতা মদন মিত্র। মদন ছড়া কেটে জানিয়ে দিয়েছেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত ধরেই বাংলার ঘাঁটি হতে চলেছে দিল্লি।

মদন মিত্র।
— ফাইল চিত্র

তৃণমূলনেত্রীকে নিশানা করে সম্প্রতি দিলীপ দাবি করেন, ‘‘যদি নন্দীগ্রামে হারতে পারেন, আবার হারতেও পারেন ভবানীপুরে। বাংলার লোকের যা মুড, তাঁরা বাংলার মেয়েকে চাইছেন না।’’ রবিবার হুগলির শ্রীরামপুরের মাহেশে পুজো দিতে যান মদন। দিলীপের ওই বক্তব্য নিয়ে করা প্রশ্নের জবাবে কামারহাটির বিধায়ক বলেন, ‘‘দিলীপ ঘোষ এটাও বলতে পারেন, শহিদ মিনার থেকে লাফ দিয়ে আত্মহত্যা করাও সম্ভব। কিন্তু আমরা তা চাইব না।’’ এর পরই স্বভাবসিদ্ধ ঢঙে ছড়া কেটে তিনি বলেন, ‘‘আসলে ভবানীপুর থেকে কামারহাটি, লক্ষ্য এ বার সবার দেশের মাটি। মমতার হাত ধরে সামনে হাঁটি, দিল্লি এ বার হবে বাংলার ঘাঁটি।’’

উপনির্বাচনে বিজেপি-র ‘তারকা প্রচারক’দের দেখা যাবে না বলেও রবিবার কটাক্ষ করেছেন মদন। তিনি বলেন, ‘‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামে পুজো দিলাম। মনটা শান্ত হল। এখন আকাশে হেলিকপ্টার বা প্লেন কিছুই দেখা যাচ্ছে না। এ বার বোধ হয়, বহিরাগতরা ‘তারকা প্রচারক’ তালিকা থেকে নাম সরিয়ে নিয়েছেন। নরেন্দ্র মোদী এবং অমিত শাহ যেমন তারকা প্রচারক নেই, তেমন আমিও নেই। আমাদের স্ট্যাটাসটা একই হয়ে গিয়েছে।’’ মদনের কটাক্ষ শুনে হাসির রোল ওঠে তৃণমূল কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে।

মাহেশে পুজো মদন মিত্রের।
নিজস্ব চিত্র

বিজেপি-র শ্রীরামপুর সাংগঠনিক জেলার সভাপতি শ্যামল বসু পাল্টা বলেন, ‘‘নন্দীগ্রামেও তো শুভেন্দু অধিকারীকে হারিয়ে দেবেন ভেবেছিলেন। কিন্তু ভাঙা পা নিয়ে ঘুরেও হারতে হয়েছে। একটা উপ নির্বাচনের জন্য প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কে আসতে হবে না। বিজেপি সর্বশক্তি দিয়ে লড়াই করবে।’’

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0মন্তব্যসমূহ

Please Type Your Valuable Feedback.
Keep Supporting. Flow as on YouTube & Facebook.

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন (0)