চন্ডিতলার ভগবতীপুরে ঘুষি মেরে প্রৌঢ় খুনের ঘটনায় গ্রেফতার ২, ৪ দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ আদালতের

নিজস্ব সংবাদদাতা: চন্ডীতলার ভগবতীপুরে ঘুষি মেরে প্রৌঢ় খুনের ঘটনায় দুইজনকে গ্রেফতার করল চন্ডীতলা থানার পুলিশ। এই ঘটনার পর থেকে পলাতক ছিল সুকুর আলি মন্ডল ও সেখ কাশেম।

অভিযুক্ত সুকুর ও কাশেমকে কোর্টে নিয়ে যাচ্ছে পুলিশ 

গত ২ সেপ্টেম্বর রাতে ভগবতীপুর জলমাদুল দিঘির পার এলাকায় চায়ের দোকানে সুকুর আলি ও রেজাউল হকের মধ্যে বচসা হয়। গ্রামের রাস্তা তৈরী নিম্নমানের হয়েছে এমন অভিযোগ করে রেজাউল। তা নিয়ে বচসার সময় সুকুর আলি ও সেখ কাশেম তাঁকে মারধর করে, এমনটাই অভিযোগ। 
এই ঢালাই রাস্তার মান নিয়েই বচসা

এরপর সুকুর সজোরে ঘুষি মারে রেজাউল হককে। ঘুষি খেয়ে ঘটনাস্থলেই লুটিয়ে পড়েন প্রৌঢ়। তাঁকে অচৈতন্য অবস্থায় টোটোয় চাপিয়ে তাঁর বাড়ি পৌঁছে দেয় কয়েকজন। এরপর স্থানীয় চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যাওয়ার আগেই তাঁর মৃত্যু হয় বলে খবর। ঘটনার পর উত্তেজিত গ্রামবাসীরা অভিযুক্তের বাড়িতে চড়াও হয়,ভাঙচুর করা হয় কাশেমের চায়ের দোকান। 
কাশেমের চায়ের দোকান ভাঙচুর 

এরপর চন্ডীতলা থানার পুলিশ গিয়ে মৃতদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। ঘটনার পর মৃতের পরিবার থেকে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়। অভিযুক্ত সুকুর আলি ও সেখ কাশেম পলাতক ছিলেন। তাঁদের খোঁজ শুরু করে পুলিশ। সোমবার রাতে নবাবপুর থেকে তাঁদের গ্রেফতার করা হয়। মঙ্গলবার তাদের শ্রীরামপুর আদালতে তোলা হলে কোর্ট তাদের ৪ দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দেন।



একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ