এস ডি পি ও আরামবাগ ফেসবুক পেজে জানিয়ে মোবাইলে ফাঁদে পড়ে চিট হওয়া টাকা ফিরে পেলেন গোঘাটের বাসীন্দা

নিজস্ব সংবাদদাতা: মোবাইলে ফাঁদ পেতে টাকা হাতিয়ে নেয়ার সংবাদ আর নতুন কিছু নয়, পুলিশ প্রশাসন থেকে বারবার সতর্ক করা হলেও মানুষ যে এখনও সার্বিক সচেতন নয় তার সাক্ষী আরামবাগ মহকুমার গোঘাট থানা এলাকার অনুপ নগরের বাসিন্দা।
গত ১৬ই নভেম্বর সকালে উক্ত ব্যক্তির মোবাইলে একটা ফোন আসে। ওপার থেকে আসা কন্ঠস্বরটি ভদ্রলোককে জানায় যে, সে যে নং থেকে ফোন করছে সেই নম্বরটি আসলে গ্যাস অফিসের, এবং ভদ্রলোকের গ্যাস কানেকশনের ভর্তুকি দেওয়ার নাম করে ওনাকে একটি নম্বরে ৮৬০০ টাকার ওয়ান টাইম পেমেন্ট করতে বলে। নানান কথার ফাঁদে পা দিয়ে ভদ্রলোক তার কষ্টার্জিত টাকা খুইয়ে বসেন। হুঁশ ফিরতেই চক্ষু চড়কগাছ। শেষ পর্যন্ত ওনার পরিচিত এক ব্যক্তি, এস.ডি.পি.ও. আরামবাগের ফেসবুক পেজে সবিস্তারে ঘটনাটি জানান। সাইবার ক্রাইম থানার সহযোগিতায় ঘটনার সুষ্ঠ তদন্ত হয় এবং গত ২৮ তারিখ উক্ত ভদ্রলোকের টাকা তাকে ফিরিয়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করা হয়। প্রতিনিয়ত এই ধান্দাবাজ সাইবার প্রতারকরা নানান মিথ্যা ফাঁদ পেতে বহু মানুষকে সর্বহারা করছে। কখনও ব্যাংকের কর্মী হিসেবে কল করে এ.টি.এম ব্লক হয়ে গেছে বলে, বা গ্যাসের ভর্তুকি ঢুকবে বলে, বা কখনও বিদেশ থেকে জিনিস পাঠাবার নাম করে কাস্টমসে টাকা লাগবে বলে বা কখনো ও.এল.এক্সে জিনিস বিক্রি করবার নাম করে ইত্যাদি বহুরকম ছল চাতুরী করে প্রতারণার ফাঁদে ফেলছে এই সব সাইবার অপরাধী রা। অথচ পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে সতর্ক করে দেয়া হয়েছে বা হচ্ছে ও যেকোনো পরিস্থিতিতেই ব্যক্তি তার গুরুত্বপূর্ণ তথ্য ফোনের মাধ্যমে কাউকেই যেন শেয়ার না করে। গোঘাটের অনুপনগরের বাসীন্দা ভদ্রলোক এসডিপিওর হস্তক্ষেপে টাকা ফেরত পেয়ে ধন্যবাদ জানান।

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ