পুরুলিয়ায় ফের উদ্ধার মাও পোস্টার, পর্যটনের মরশুমে বাড়ছে উদ্বেগ

সুমিত বিশ্বাস, পুরুলিয়া: পুরুলিয়ার বান্দোয়ান থানার দুয়ারসিনি মোড়ে মাওবাদী পোষ্টার উদ্ধার। শনিবার সকালে ঝাড়খণ্ড লাগোয়া-বাংলা সীমানায় দুয়ারসিনি মোড়ে একটি সরকারি বোর্ডে হিন্দিতে লেখা এই পোষ্টার দেখতে পান স্থানীয় বাসিন্দারা। সঙ্গে সঙ্গে বান্দোয়ান থানার পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছয়। পোষ্টারগুলি উদ্ধার করে নিয়ে যায়।

হিন্দিতে লেখা ওই পোস্টারের বয়ান, “নকশালরা একসঙ্গেই আছে। নকশালরা বাড়িছাড়া রয়েছে। তাদের পরিবারের জন্য অর্থ সংগ্রহ করছে।” প্রাথমিকভাবে পুলিশের সন্দেহ, পোষ্টারগুলি ঝাড়খণ্ড থেকে এসে কেউ লাগিয়ে গিয়েছে। তবে কে বা কারা একাজ করল, তা এখনও স্পষ্ট নয়।

[আরও পড়ুন: জন্ম দিলেন কেন? চিকিৎসকের বিরুদ্ধে মামলা লড়ে কোটি টাকা জরিমানা আদায় তরুণীর]

২-৮ ডিসেম্বর সিপিআই (মাওবাদী)র গণমুক্তি গেরিলা ফৌজ সপ্তাহ চলছে। এই গেরিলা ফৌজ সপ্তাহের মধ্যেই ফের মাওবাদী পোস্টার মিলল পুরুলিয়ায়। যার ফলে উদ্বিগ্ন প্রায় সকলেই। শীতের মরশুমে এখন দুয়ারসিনিতে প্রচুর পর্যটক রয়েছেন। গালুডি-ঘাটশিলা যাওয়ার রাস্তায় ঝাড়খন্ড লাগোয়া এই দুয়ারসিনি বাংলার অন্যতম পর্যটন কেন্দ্র। ভরা শীতে পর্যটনের মরসুমে দুয়ারসিনিতে এখন পর্যটকদের ভিড়। উল্লেখ্য, ২০০৬ সালে দুয়ারসিনি মোড়ে নির্মীয়মাণ বান্দোয়ান পঞ্চায়েত সমিতির গেস্ট হাউসে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। তার ঠিক ১৫ বছর পর আবারও কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটবে না তো, এই প্রশ্নই ঘুরছে চতুর্দিকে। মাওবাদীদের পোস্টার ঘিরে স্বাভাবিকভাবেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

এ প্রসঙ্গে পুরুলিয়ার পুলিশ সুপার এস. সেলভামুরুগণ বলেন, “এই পোস্টারের বিষয়ে আমরা খোঁজ নিচ্ছি।” ঝাড়খণ্ড থেকে আসা কেউ একাজ করেছে বলেই অনুমান পুলিশের। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।

[আরও পড়ুন: বাংলাদেশের মাদ্রাসায় ধর্ষণের চেষ্টা, অভিযুক্ত শিক্ষকের যৌনাঙ্গ কাটল নির্যাতিত কিশোর]



from রাজ্য​ – Sangbad Pratidin https://ift.tt/3lBGyKz

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ