Ticker

6/recent/ticker-posts

Municipal Election 2022 Live Update: দক্ষিণ দমদম পৌরসভার ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডে উত্তেজনা! ছাপ্পা ভোট দেওয়ার অভিযোগ

 নিজস্ব প্রতিবেদন: আজ রাজ্যের ১০৮টি পুরসভায় নির্বাচন (Municipal Election 2022)। প্রতিটি বুথকেই স্পর্শকাতর হিসেবে ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। বিশেষ নজর থাকবে দুই ২৪ পরগনা, নদিয়া, পূর্ব বর্ধমান, পূর্ব মেদিনীপুর ও বীরভূমে। রাজ্য পুলিসেই আস্থা রেখেছে নির্বাচন কমিশন। আজ মাঠে নামছে ৪৪ হাজার পুলিসকর্মী।

9.40 am: বনগাঁ পৌরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডের ঠাকুরপল্লি বুথে নির্দল প্রর্থী এবং তার নির্বাচনী এজেন্ট (মেয়ে) মারধোর অভিযোগ তৃণমূল প্রার্থীর স্বামীর বিরুদ্ধে। নির্দল প্রর্থীকে বুথে ঢুকতে দিচ্ছে না বলেও অভিযোগ। নির্দল প্রার্থীর দুই মেয়ের ফোন ভাঙে দিয়েছে বলেও অভিযোগ। থানার দারস্ত প্রার্থী।



9.20 am: মহেশতলা পৌরসভার ৩৫ নম্বর ওয়ার্ডের ৩৬৪ নম্বর ৩৬৭ নম্বর ৩৭৬ নম্বর ৩৭৭, ৩৭৮, ৩৭৯ নম্বর বুথে সিসিটিভি বন্ধ করে দেওয়া ও এজেন্টদেরকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে এবং সিসিটিভি ভাঙচুর করা হয়। 



9.16 am: কাঁথি, ২ নং ওয়ার্ডের বিজেপি প্রার্থী গৌতম দাসের ছেলেকে মারধোর। গৌতম দাসের ফোন কেড়ে নেওয়ার অভিযোগ। প্রচুর বহিরাগতর জমায়েত। মিডিয়া খবর সংগ্রহ করতে গেলে মিডিয়াকে তাড়া।



9.12 am: বিজেপি এবং তৃণমূল প্রার্থীর অভিযোগ ঘিরে চরম উত্তেজনা ইংরেজবাজার পৌরসভার ১২ নম্বর ওয়ার্ডের ১৬৯ নম্বর বুথে। যদিও পরে ইংরেজবাজার থানার বিশাল পুলিসবাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। তৃণমূলের অভিযোগ বহিরাগতদের নিয়েছে বুথ জ্যাম করার চেষ্টা করছে বিজেপি। অন্যদিকে বিজেপির অভিযোগ এজেন্টের বুথে ঢুকতে দিতে বাধা দিচ্ছে তৃণমূল। দুই প্রার্থীর এই অভিযোগকে ঘিরে চরম উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে সকাল থেকেই।



9.10am: দক্ষিণ দমদম পৌরসভার ৩৩ নম্বর ওয়ার্ডের ১০৮ নম্বর বুথে সকাল সাড়ে আটটা থেকে ছাপ্পা ভোটের অভিযোগ।

8.50 am: জলপাইগুড়ি পুরসভার ১২ নম্বর ওয়ার্ডে কংগ্রেস প্রার্থীকে বুথ থেকে বের করে দেওয়ার অভিযোগ। পুলিসের বিরুদ্ধে অভিযোগের তির।



8.45 am: উত্তর বারাকপুরের ২৩ নম্বর ওয়ার্ডের নির্দল প্রাথী দেবাশীষ দে'র এজেন্টদের বুথে বসতে না দেওয়ার অভিযোগ। তৃণমূল প্রার্থী রবীন্দ্রনাথ ভট্টাচার্যের লোকজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ। অস্বীকার তৃণমূল প্রাথীর



8.40 am: কাঁথির পুরসভার ২১ নম্বর ওয়ার্ডে উত্তেজনা। বিজেপি (BJP) এজেন্টকে বুথে বসতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ। বহিরাগতদের ভিড় করার অভিযোগ। ঘটনাস্থলে শুভেন্দু অধিকারীর ভাই সৌমেন্দু অধিকারী। অভিযোগ অস্বীকার শাসকদলের। 

8.30 am: রাজপুর-সোনারপুরের ১৭ নম্বর ওয়ার্ডে উত্তেজনার ঘটনায় গ্রেফতার ৭। রাজ্য নির্বাচন কমিশন সূত্রে খবর। 



8.00 am: দক্ষিণ দমদম পুরসভার ২২ নম্বর ওয়ার্ডের মতিঝিল স্কুলে উত্তেজনা। সিপিআইএম (CPIM) প্রার্থী অস্মিতা করের এজেন্টকে বুথে ঢুকতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ। বুথের বাইরে ব্যাপক উত্তেজনা। তৃণমূল-সিপিএম বচসা। নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ দায়ের।



7.30 am: শনিবার রাতের পর রবিবার সকালেও উত্তপ্ত কামারহাটি পুরসভার ২৯ নম্বর ওয়ার্ডের উত্তর বাসুদেবপুর এলাকা। তৃণমূল কংগ্রেসের (TMC) দু'পক্ষের মধ্যে গন্ডগোলের অভিযোগ। তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থীকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখায় এলাকাবাসী। এছাড়া ভুঁয়ো পুলিস সেজে বুথে ঢোকার অভিযোগ উঠেছে। ওই ব্যক্তিকে হাতেনাতে ধরে ফেলেন এলাকার লোকজন। মারধর করা হয়। গ্রেফতার হয় অভিযুক্ত। 



7.20 am: পুরভোটে রাজপুর-সোনারপুরে উত্তেজনা। ১৭ নম্বর ওয়ার্ডে সিপিএম এজেন্ট এবং কংগ্রেস প্রার্থীকে মারধরের অভিযোগ। ৩টি ইভিএম মেশিন ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ। বৈকন্ঠপুর সারদা বিদ্যাপীঠে ব্যাপক উত্তেজনা। তৃণমূল কংগ্রেসের (TMC) বিরুদ্ধে সন্ত্রাসের অভিযোগ। এলাকায় বিশাল পুলিস। ব্যাপক লাঠিচার্জ।

7.00 am: কোন্নগর পুরসভার ১০ নম্বর ওয়ার্ডের বিজেপি (BJP) প্রার্থী কৃষ্ণা ভট্টাচার্যকে মারধরের অভিযোগ। অভিযোগের তির তৃণমূলের (TMC) দিকে। মারধরের ঘটনায় এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায়। কোন্নগরের বটতলার জিটি রোড অবরোধ বিজেপি কর্মীদের। পরে পুলিশ অবরোধ সরায়। অভিযোগ অস্বীকার শাসক দলের

6.15 am: ভোটের আগের রাতে রণক্ষেত্র কামারহাটি। কামারহাটি পুরসভার ২৯ নম্বর ওয়ার্ডে তৃণমূল কংগ্রেসের (TMC) দুই গোষ্ঠীর মধ্যে মারপিটের অভিযোগ। ওই ওয়ার্ডের তৃণমূল প্রার্থীর সমর্থকরা রাতে যখন বাড়ি ফিরছিলেন তখন অন্য গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে মারধরের অভিযোগ উঠেছে। লাঠি দিয়ে মারধরের অভিযোগ উঠেছে। রাতেই এলাকায় পৌঁছয় বিশাল পুলিস। তাঁরাই পরিস্থিতি সামাল দেয়।  



6.00 am: ভোটের আগের রাতে কাঁথি পুরসভার ৯ নম্বর ওয়ার্ডে বহিরাগতদের জড়ো করার অভিযোগ। তৃণমূল কংগ্রেসের (TMC) বিরুদ্ধে অভিযোগ। 'বহিরাগত'দের তাড়া করলেন প্রার্থী বনশ্রী মাইতি এবং মহিলা কর্মীরা।


6.25 am: বহরমপুর পুরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ডে কংগ্রেসের (Congress) পোলিং এজেন্টদের বুথে বসতে বাধা দেওয়ার অভিযোগ। ঘটনাস্থলে লোকসভার বিরোধী দলনেতা অধীর চৌধুরী (Adhir Chowdhury)। তিনি অভিযোগ করেন, সকাল থেকে মহিলা এজেন্টদের বাঁশ-লাঠি নিয়ে তাড়া করা হচ্ছে। তাঁদের উপর হামলা করা হচ্ছে। এজেন্টদের বুথে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। পুলিসের বিরুদ্ধেও অসহযোগিতার অভিযোগ করেছেন তিনি। ঘটনাস্থলে ব়্যাফ, বিশাল পুলিস। 

একটি মন্তব্য পোস্ট করুন

0 মন্তব্যসমূহ